১ লাখ টাকায় যাকাত কত?

যদি অনেকেই জানেন ১ লাখ টাকায় যাকাত কত, কারণ বিয়সটি দৈনিক পাঁচ ওয়াক্ত নামাজের মতই জানা বিষয়, এর পরেও অনেকেই জানে। তাদের জন্য এই লেখা।

একজন ধনী সামর্থবান ব্যক্তি তার সম্পদের ভেতর শরিয়তের মাধ্যমে নির্ধারিত পরিমাণ যাকাত যাকাত দিয়ে থাকে, বর্তমান সময়ে আগের মত দিনার দিরহামের হিসাব নেই, তাই স্বর্ণ রুপায় যাকাতের হিসাবের চেয়ে টাকায় হিসাব জানাটা বেশি জরুরী।

১ লাখ টাকার যাকাত হিসাব করার নিয়ম

নির্ধারিত পরিমাণ (নিসাব পরিমাণ) থেকে বেশি সম্পত্তি ১ বছর কোন ব্যক্তির কাছে থাকলে। তার মোট সম্পত্তির ২.৫℅ গরীব, মিসকিন বা অসহায় মানুষদের মাঝে বিতরন করতে হবে। যাকাত ইসলামের ৫ স্তম্ভের একটি এবং নিসাব পরিমাণ সম্পদ হলে মুসলমানদের জন্য যাকাত আদায় করা ফরজ। 

যাকাত সম্পর্কে আরও জানতে

যাকাতের কথা পবিত্র কুরআনে ৩২ বার উল্লেখ হয়েছে। তাই যাকাতের গুরুত্ব ইসলামে অপরিসীম

মূলত ইসলামের যাকাতের বিধান অনুযায়ী যাকাত শতকরা ২.৫ টাকা মানে ১০০ টাকা হলে ২.৫ টাকা যাকাত দিতে হবে । সেই হিসেবে ১ লক্ষ বা এক লাখ টাকার যাকাত হলো ২, ৫০০ টাকা। অর্থাৎ ১ লক্ষ (১০০,০০০) টাকায় ২,৫০০ টাকা যাকাত আদায় করতে হবে। অতএব, মোট যাকাতের নিসাব থেকে ৪০ ভাগের ১ ভাগ (৪০/১) যাকাত আদায় করতে হয়।

স্বর্ণের যাকাতের নিসাব কত?

স্বর্ণের নিসাব: স্বর্ণের যাকাতের নিসাব হলো বিশ দিরহাম স্বর্ণ , যা ওজন করলে ৮৫ গ্রাম স্বর্ণ হয়, কারও মালিকানাধীন যদি ৮৫ গ্রাম বা তার চেয়ে বেশি স্বর্ণ থাকে, এক বছর পূর্ণ হলে তার উপর যাকাত ওয়াজিব হবে। যাকাতের পরিমাণ হলো মোট স্বর্ণের ২.৫ পার্সেন্ট।

কোন ব্যক্তির নিকট কি পরিমাণ এবং যে ক্যারেটের স্বর্ণ আছে, প্রথমে সেই ক্যারেটের এক গ্রাম স্বর্ণের বাজার দাম জানবে। যদি ভিবিন্ন ক্যারেটের স্বর্ণ থাকে, আর যদি কম থাকে তাহলে যে ক্যারেট স্বর্ণ বেশি আছে তার বাজার দর জানবে আর যদি স্বর্ণ, বেশি থাকে তাহলে প্রতিটি আলাদা আলাদা জানতে হবে অতঃপর একগ্রাম স্বর্ণের মূল্যকে তার নিকট যত গ্রাম স্বর্ণ আছে তার সংখ্যা দিয়ে পূরণ দিবে এরপর তার পুরো স্বর্ণের মূল্য থেকে ২.৫ (আড়াই) ভাগ দিতে হবে। এটাই স্বর্ণের যাকাতের হিসাব।

রুপার যাকাতের নিসাব কত?

রুপার নিসাব উল্লেখ করে রাসূলুল্লাহ (সা.) বলেছেন, ‘পাঁচ উকিয়ার কম রুপায় কোন যাকাত নেই (সহীহ আল-বুখারী)।

উল্লেখ্য, ১ উকিয়া = ৪০ দিরহাম, আর ৫ উকিয়া হলো ৪০ ×৫= ২০০ দিরহাম। অন্য আরেক জায়গায় রাসূল (সা) বলেন, তোমরা প্রতি ৪০ দিরহামে ১ দিরহাম যাকাত আদায় করবে। ২০০ দিরহাম পূর্ণ না হওয়া পর্যন্ত তোমাদের প্রতি কিছুই ফরজ নয়। ২০০ দিরহাম পূর্ণ হলে এর যাকাত হবে ৫ দিরহাম এবং এর অতিরিক্ত হলে তার যাকাত উল্লেখিত হিসাব অনুযায়ী প্রদান করতে হবে (সুনান আবু দাউদ)। হাদীসে বর্ণিত ২০০ দিরহাম = ৫৯৫ গ্রাম রুপা। ১১.৬৬ গ্রাম = ১ ভরি হলে ৫৯৫ গ্রাম রুপা হবে ৫৯৫÷১১.৬৬= ৫১.০২ ভরি। উক্ত পরিমাণ রুপার কারো কাছে ১ বছর থাকলে তার ওপর বর্তমান বাজার মূল্যের হিসাবে মোট সম্পদের শতকরা ২.৫০ (আড়াই) ভাগ রুপার যাকাত দিতে হবে।

যাকাত সম্পর্কিত আয়াত

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *