ফরজ গোসলের নিয়ম ও দোয়া

ইসলামের পরিভাষায়, ফরজ গোসলের নিয়ম, হল সমস্ত দেহ ধৌত করার মাধ্যমে পূর্ণ পবিত্রতা অর্জনের একটি পন্থা। ইসলামের ভিবিন্ন ইবাদাতের ক্ষেত্রে পূর্বশর্ত হচ্ছে গোসল। সকল প্রাপ্তবয়স্ক মুসলমান নারী-পুরুষ যৌনসঙ্গম, বীর্যপাত,  হায়েজ-নেফাস সমাপ্তির পর, সন্তান প্রসবের পর এবং মৃত্যুর পর গোসল করা ফরজ (বাধ্যতামূলক)।

এছাড়া, শুক্রবার জুম্মার নামাজের পূর্বে, ঈদের নামাজের পূর্বে, ইহরাম বাধার পূর্বে, হজ্জের জন্য প্রস্তুত হওয়ার পূর্বে, অজ্ঞান হওয়ার পর সচেতন হলে এবং আনুষ্ঠানিকভাবে কেউ ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করার পূর্বে গোসল করা মুস্তাহাব (উৎসাহিত করা হয়)।

ইসলামের দৃষ্টিতে গোসলের পানি যেমনঃ-

  • বৃষ্টির পানি
  • কূয়ার পানি
  • ঝর্ণা, সাগর বা নদীর পানি
  • বরফ গলা পানি
  • বড় পুকুর বা টেঙ্কের পানি

যেই পানি দিয়ে গোসল করা জয়েজ নয়ঃ-

  • অপরিচ্ছন্ন বা অপবিত্র পানি
  • ফল বা গাছ নিসৃতঃ পানি
  • পানির মধ্যে কোন কিছু মিশানোর কারণে যে বর্ণ, গন্ধ, স্বাদ এবং গারত্ব পরিবর্তিত হয়েছে।
  • পানির পরিমাণ অল্প : যাতে অপবিত্র জিনিস মিশে গেছে (যেমনঃ মূত্র, রক্ত, মল বা মদ)।
  • অযু বা গোসলের পানি।
  • অপবিত্র তথা হারাম প্রাণী, যেমনঃ শূকর, কুকুর ও আন্যান্য হিংস্র প্রাণীর পানকৃত আবশিষ্ট পানি।

ফরজ গোসলের নিয়ম

নিম্নে ফরজ গোসলের নিয়ম দেওয়া হলো –

  • গোসলের দোয়া পড়া

أنا أستحم للتخلص من الجنابة.

উচ্চারণঃ নাওয়াইতুল গুছলা লিরাফইল জানাবাতি। অর্থঃ আমি নাপাকি থেকে পাক হওয়ার জন্য গোসল করছি।

  • গোসলের নিয়ত করে বিসমিল্লাহ, বলে দুই হাত কব্জি পর্যন্ত ভালো করে ধৌত করা।
  • এরপর শরীরের কোন জায়গায় অপবিত্র বস্তু থাকলে পরিষ্কার করা।
  • অজু করা। গড়গড়া কুলি করা, রোজাদার হলে গড়গড়া করা যাবে না। তিনবার কুলি করা সুন্নত
  • তিনবার নাকে পানি দিয়ে নাক পরিষ্কার করা।
  • অজুর করার পর মাথায় এমনভাবে পানি ঢালা যেন চুলের গোড়া পর্যন্ত পানি পৌঁছে যায়।
  • ডান কাঁধে পরে বাম কাঁধে পানি ঢেলে সমস্ত শরীর ধৌত করা, যেন শরীরের কোন অংশ শুকনো না থাকা।
  • সর্বশেষে পা ধুয়া।
  • অতঃপর সারা শরীর কোন কাপড় বা গামছা দিয়ে মুছে শুকনো কাপড় পড়া।

পবিত্রতা তথা গোসল সম্পর্কে আল কোরআন

إِنَّ اللّهَ يُحِبُّ التَّوَّابِينَ وَيُحِبُّ الْمُتَطَهِّرِينَ

অর্থ: নিশ্চয়ই আল্লাহ তওবাকারী এবং অপবিত্রতা থেকে যারা বেঁচে থাকে তাদেরকে পছন্দ করেন। (সূরা বাকারা : ২২২)

فِیۡهِ رجَالٌ یُّحِبُّوۡنَ اَنۡ یَّتَطَهَّرُوۡا وَ اللّهُ یُحِبُّ الۡمُطَّهِّرِیۡنَ 

‘সেথায় এমন লোক আছে, যারা পবিত্রতা অর্জন ভালোবাসে এবং পবিত্রতা অর্জনকারীদের আল্লাহ ভালোবাসেন।’ (আল কোরআন ৯:১০৮)।